MIST ভর্তি সার্কুলার ২০২২

MIST ভর্তি সার্কুলার ২০২২- MIST ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১-২০২২

MIST ভর্তি সার্কুলার ২০২২ প্রকাশিত হয়েছে। MIST এর পুরো নাম হল মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি । সংক্ষেপে বলা হয় MIST । এটি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা তে অবস্থিত। বিশ্ববিদ্যালয়টি সম্পূর্ণ সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রিত। এটি রাজধানী ঢাকার মিরপুর ক্যান্টনমেন্ট এ নিয়ন্ত্রিত একটি বিশ্ববিদ্যালয়। 1998 সালে বাংলাদেশ সামরিক বাহিনী কর্মকর্তাগণ বিএসসি প্রকৌশল অধ্যায়ন করার জন্য বাংলাদেশ সরকার এটি সেনাবাহিনীর অন্তর্গত হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন। এবং 2008 সালে এটি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনাল এর অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এরপূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়টি এমআইটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত ছিল। যে সকল শিক্ষার্থীরা ভর্তি হওয়ার জন্য আগ্রহী তাদের জন্য সুখবর। এমআইএসটি পরীক্ষার লক্ষ্যে ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে।

MIST ভর্তি সার্কুলার ২০২২

আপনি কি এম আই এস টি ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২২ খুঁজছেন ?  আপনি যদি MIST ভর্তি পরীক্ষার্থী হয়ে থাকেন তাহলে ঠিক জায়গাতেই এসেছেন। আমাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খুব সহজে আপনি এখানে ভর্তি সার্কুলার পাবেন। তাছাড়া ভর্তি সম্পর্কিত সকল তথ্য আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে থাকি। আবেদনের সকল সময়সূচী এবং ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি ছাড়াও কিভাবে আপনি ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করবেন সে সম্পর্কিত সকল তথ্য আমাদের ওয়েবসাইট থেকে দেখে নিন।

MIST ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২১-২০২২

২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তির লক্ষ্যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে MIST বিশ্ববিদ্যালয়। যারা বিজ্ঞপ্তি সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে চান তারা এই নিবন্ধটির মনোযোগ সহকারে পড়ুন। নিচে ভর্তির সম্পর্কিত সকল তথ্য দেখে নিন। বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশিত সময়সূচি অনুযায়ী সকল কার্যক্রম সংঘটিত হবে। তাই বিজ্ঞপ্তিটি অবশ্যই আপনাদের মনোযোগ সহকারে পড়ে নেওয়া উচিত। সার্কুলারে পরীক্ষার সময়সূচি সহ সকল বিস্তারিত তথ্য প্রদান করা আছে।

ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ও সময়

আমাদের এখান থেকে আপনি জানতে পারবেন MIST অনলাইনে ভর্তি আবেদন শুরুর তারিখ এবং শেষের তারিখ, ভর্তি পরীক্ষার, তারিখ আবেদন ফি সহ সকল তথ্য তাই নিচে সকল তথ্য গুলো  দেখে নিন।

অনলাইনে ভর্তির আবেদন শুরুর তারিখ ২৬ জুন ২০২২
অনলাইনে ভর্তির আবেদন শেষের তারিখ ১৪ জুলাই ২০২২
ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ২২ জুলাই ২০২২
আবেদন ফি ৭00 টাকা
ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্র ঢাকা এবং খুলনা

এমআইএসটি ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন

এম আই এস টি ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন  সম্পর্কে আপনার অবশ্যই ধারণা থাকতে হবে। তাছাড়া আপনি ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ভালো ফলাফল করতে পারবেন না। ভালো ফলাফল এবং প্রস্তুতির জন্য অবশ্যই মানবণ্টন জেনে নেওয়া জরুরী। এম আই এস টি ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন সম্পর্কে নিচে সম্পূর্ণ তথ্য দেখুন।

বিষয় নম্বর মোট নম্বর
গণিত ৪০ মোট নম্বর :১০০

পরীক্ষার সময়ঃ ১ ঘন্টা

সংক্ষিপ্ত সিলেবাস mcq পরীক্ষা

পদার্থ ৩৫
রসায়ন ২৫

এমআইএসটি ভর্তি আবেদন করার নিয়ম

এমআইএসটি ভর্তি অনলাইনের মাধ্যমে করতে হবে। আবেদন ফরম পূরণের জন্য প্রথমে যে নির্দেশনাগুলো আপনাকে অনুসরণ করতে হবে।

  • প্রথমে আপনাকে MIST অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে
  • অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য admission.mist.ac.bd এই লিঙ্কে প্রবেশ করুন
  • এবার অনলাইন অ্যাপ্লিকেশন এ প্রবেশ করুন
  • উক্ত পেইজ এ আবেদন ফরম পাবেন।
  • ফর্ম ডাউনলোড করে নিন এবং সম্পূর্ণ পূরণ করুন
  • সার্কুলারে বর্ণিত নিয়ম অনুযায়ী জমা দিতে হবে।

mu

 

MIST ভর্তি এডমিট কার্ড ডাউনলোড

ভর্তি পরীক্ষার্থীদের অবশ্যই প্রবেশপত্র সঙ্গে আনতে হবে। প্রবেশপত্র ছাড়া কোনো পরীক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না। তাই পরীক্ষার জন্য প্রবেশপত্র একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

  • প্রথমে অফিশিয়াল ওয়েবসাইট admission.mist.ac.bd প্রবেশ করুন
  • তারপরে, এডমিট কার্ড ডাউনলোড বিকল্পে ক্লিক করুন
  • লগইন অপশন আসবে সেখানে আপনার রোল নম্বর এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন
  • এবার আপনার সামনে এডমিট কার্ড প্রদর্শিত হবে
  • এবার এডমিট কার্ড টি ডাউনলোড করে প্রিন্ট আউট করে নিন।

এমআইএসটি ভর্তি পরীক্ষা ২০২২ বিষয়ক নির্দেশনাবলী

  • বিজ্ঞপ্তিতে বর্ণিত সময়ের মধ্যে পরীক্ষার্থীদের আবেদন সম্পন্ন করতে হবে।
  • পরবর্তীতে কোনো আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না
  • উল্লেখিত সময় ও তারিখ এর মধ্যে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করে নিতে হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সময় শিক্ষার্থীদের অবশ্যই প্রবেশপত্র সঙ্গে আনতে হবে।
  • পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষার হলে কোন ইলেকট্রিক ডিভাইস ব্যবহার করতে পারবেন না।।
ভর্তি পরীক্ষার আসন সংখ্যা

এমআইএসটি ভর্তি পরীক্ষার আসন সংখ্যা 565 টি । সাধারণভাবে প্রায় ৫০% পার্সেন্ট ও সামরিক অফিসারদের জন্য বরাদ্দ করা হবে। কিন্তু সামরিক শিক্ষার্থীদের অবস্থান ক্ষেত্রে কোন নির্দিষ্ট বছরের শূন্যপদ কম থাকে। সামরিক কর্মীদের শিশুদের জন্য কোটা 40% , মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের জন্য ২%। এবং উপজাতীয় নাগরিকদের জন্য ১%।

Leave a Comment

Your email address will not be published.